এনড্রিকের শেষ মুহূর্তের গোলে ব্রাজিলের দুর্দান্ত জয়


এন্দরিক ফিলিপেকে ১৫ বছর বয়সেই দলে ভিড়িয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। ১৮ পূর্ণ হতে যাওয়ায় এ বছর রিয়াল মাদ্রিদে পাড়ি দিচ্ছেন তিনি। অল্প বয়স হলেও এ তারকা যে মূল্যবান ‘রত্ন’, তা আরও একবার বোঝা গেল। মেক্সিকোর বিপক্ষে ড্র করতে বসা ব্রাজিল জিতল তার গোলেই। ৯৫ মিনিট পর্যন্ত ম্যাচ ছিল ২-২ গোলে সমতায়, পরের মিনিটে দলকে জয় এনে দেন এন্দরিক।

রোববার (৯ জুন) যুক্তরাষ্ট্রের কাইল ফিল্ডে ম্যাচের শুরু থেকেই মেক্সিকোকে চেপে ধরে পাঁচ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। প্রথমার্ধের পঞ্চম মিনিটে আন্দ্রেয়াস পেরেইরার গোলে এগিয়ে যায় দরিভাল জুনিয়রের শিষ্যরা। প্রথমার্ধে অবশ্য আর কোনো গোল পায়নি তারা।

দ্বিতীয়ার্ধেও চাপের রেশ ধরে রাখে ব্রাজিল। ম্যাচের ৫৪ মিনিটে গ্যাব্রিয়েল মার্টিনেল্লির সহজ গোলে আবারও ২-০ গোলে এগিয়ে যায় হলুদ জার্সিধারীরা।

কিন্ত কাইল ফিল্ডে হঠাৎ ছন্দপতন দেখা দেয় ব্রাজিল শিবিরে। ম্যাচের ৭৩ মিনিটে জুলিয়ান কুইনোনস মেক্সিকোর হয়ে ব্রাজিলের গোলপোস্টে বলা জড়ান। এরপরের মিনিটেই ব্রাজিল মাঠে নামায় প্রথম একাদশে না থাকা তাদের তুরুপের তাস ভিনিসিউস জুনিয়রকে। ব্রাজিল দল যখন প্রহর গুনছে ২-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ার, তখনই ম্যাচে দেখা দেয় চরম নাটকীয়তা। যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে গুইলারমো মার্টিনেজের করা গোলে সমতায় ফেরে মেক্সিকানরা। তবে র‌্যাঙ্কিংয়ে চারে থাকা ব্রাজিল বুঝিয়ে দিল কেন তারা সেরা।

ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ের ৬ষ্ঠ মিনিটে ডি বক্সে ভিনিসিউস জুনিয়রের ক্রসে লাফিয়ে নিখুঁত হেডে এন্দরিকের গোলে আবারও এগিয়ে যায় লাতিন আমেরিকার পরাশক্তিরা। জাতীয় দলের জার্সিতে ৬ ম্যাচে এন্দরিকের এটা চতুর্থ গোল। এর ফলে জমজমাট ম্যাচে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাজিল।

কোপা আমেরিকার আগে আরও একটি ম্যাচ খেলবে ব্রাজিল। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৩ জুন যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *